লিভারের বৃদ্ধি ,কারন,লক্ষন,প্রতিকার ও চিকিৎসা

লিভারের আকৃতি স্বাভাবিকের চেয়ে বড় হয়ে গেলে উক্ত অবস্থাকে লিভারের বৃদ্ধি বা হেপাটোমেগালি বলে । এটি লিভারের একটি অনির্দিষ্ট ( নন- স্পেসিফিক ) রোগজনিত উপসর্গ যার বিভিন্ন কারণ আছে । এটি পরবর্তীতে সংক্রমণ , লিভারের টিউমার বা বিপাকীয় সমস্যা হিসেবে দেখা দিতে পারে । সাধারণভাবে লিভারের বৃদ্ধির ক্ষেত্রে পেটের মধ্যে পিন্ড হিসেবে অনুভূত হয় ।

কারন:

ক) টেনডার বা কোমল প্রকৃতির হেপাটোমেগালি –
১। তীব্র ভাইরাসজনিত হেপাটাইটিস ।
২। লিভার অ্যাবসেস ।
৩। রক্ত জমাটবদ্ধতাজনিত কার্ডিয়াক ফেইলর বা কনজেসটিভ কার্ডিয়াক ফেইলর ।

খ) নন – টেনডার বা কঠিন প্রকৃতির হেপাটোমেগালি –
১। ম্যালেরিয়া ।
২। কালা-জ্বর ।
৩। হেপাটোসেলুলার কারসিনোমা বা লিভার ক্যান্সার ।
৪। মেটাস্টাসিস বা লিভারের ক্যান্সার এক স্থান থেকে অন্য স্থানে ছড়িয়ে পড়ে ।
৫। লিউকেমিয়া ।
৬। লিস্ফোমা বা শ্বেত রক্তকণিকা থেকে উৎপন্ন ক্যান্সার ।
৭। পলিসাইথেমিয়া রুবরা ভেরা বা অস্থি মজ্জায় প্রচুর পরিমাণে লোহিত রক্তকণিকা উৎপন্ন হওয়া যার ফলে রক্ত প্রচুর ঘন ও আঠালো হয়ে যায় ।
৮। জন্মগত হিমোলাইটিক রক্তস্বল্পতা।
৯। ফ্যাটি লিভার ।
১০। হিমোক্রোমাটোসিস বা জিনগত রোগ যাতে দেহে অধিক পরিমাণ আয়রন শোষণ করে এবং তা লিভারে জমা হয় ।

লক্ষন :

১। জন্ডিস ।
২। ওজন হ্রাস ।
৩। ক্ষুধামান্দ্র ।
৪। ক্লান্তি বা ঝিমুনিভাব ।

ঝুঁকিপূর্ণ ফ্যাক্টর:

১। অতিরিক্ত অ্যালকোহল সেবন ।
২। অতিরিক্ত মাত্রায় ওষুধ , ভিটামিন বা ভিটামিন সপ্লিমেন্ট গ্রহণ ; অ্যাসিটামোফেন জাতীয় ওষুধ লিভার রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে ।
৩। সংক্রমণঃ জীবাণুঘটিত সংক্রমণ , যেমন- ভাইরাস , ব্যাকটেরিয়া বা প্যারাসাইট এর সংক্রমণ লিভার কোষে ক্ষতির মাত্রা বাড়িয়ে তোলে ।
৪। হেপাটাইটিস: হেপাটাইটিস এ , বি এবং সি এর কারণে লিভার ক্ষুতিগ্রস্ত হয় ।
৫। ক্রুটিপূর্ণ খাদ্যাভাসঃ অতিরিক্ত খাবার , অস্বাস্থ্যকর খাবার , অতিরিক্ত চর্বি ও চিনিযুক্ত খাবার লিভার রোগের ঝুঁকি বাড়িয়ে তোলে ।

পরামর্শ :

১। প্রচুর ফল , সবজি এবং খাদ্যশস্য সমৃদ্ধ ও স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে হবে ।
২। অ্যালকোহল পরিহার করতে হবে ।
৩। ওষুধ , ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করার সময় চিকিৎসকের পরামর্শ মতো ডোজে খেতে হবে ।
৪। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে ।
৫। ধূমপান পরিহার করতে হবে ।

চিকিৎসা:

Syp. Liverist 4+0+4
Cap. Jigarine 2+0+2
Cap. Livec 1+0+1
Syp. Icturn

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *